পাকিস্তানের নির্বাচনে নিজেদের জয়ী ঘোষণা করল ইমরান খানের দল

 নিউজ ডেস্ক: পাকিস্তানের ১৬তম সাধারণ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেল ৫টায়। কিন্তু ২৪ ঘণ্টা পরেও আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা আসেনি। এখনও কিছু আসনের ভোট গণনা চলছে।

 

ফলাফল আসতে দেরি হওয়ায় নির্বাচনে নিজেদেরকে জয়ী ঘোষণা করে একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দল পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই)। খবর- ডেকান হেরাল্ড।

যেখানে দলটি জানিয়েছে, একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনের জন্যে ১৩৩ আসনে জয়ের যে বাধ্যবাধকতা রয়েছে তা ইতোমধ্যে ছাড়িয়ে গেছেন দলটির সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। দেশটির জাতীয় পরিষদের (এনএ) ২৬৫ আসনের মধ্যে তারা জিতেছেন ১৫০টিরও বেশি আসনে। কেন্দ্রীয় সরকার গঠনে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ দুটি প্রদেশ পাঞ্জাব এবং খায়বার পাখতুনখোয়াতে পিটিআই বড় ব্যবধানে জয় পেয়েছে বলে দাবি করেছে দলটি। দেশটির নির্বাচন কমিশনের খসড়া ফলাফল ফর্ম-৪৫ এর তথ্য অনুযায়ী এমনটি দাবি করে পিটিআই। এছাড়া প্রতিটি ভোটকেন্দ্রে প্রাপ্ত প্রার্থীদের ভোটের চিত্রও দেখানো হয়েছে।

ইমরান খানের দল, ওই বিবৃতিতে সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজের শরিফের দল মুসলিম লিগকে (পিএমএল-এন) পরাজয় মেনে নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে। যদিও নওয়াজ শরিফের দল এই দাবি প্রত্যাখান করেছে। তারা পাল্টা দাবি তুলেছেন, বৃহস্পতিবারের নির্বাচন জিতেছেন বলে।

এদিকে রয়টার্স বলছে, শুক্রবার ১০০ টিরও বেশি আসনে ভোটগণনা সম্পন্ন হওয়ার পর কারাগারে বন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সমর্থক স্বতন্ত্র প্রার্থীরা পাকিস্তানের নির্বাচনী ফলাফলে এগিয়ে রয়েছে বলে স্থানীয় মিডিয়া জানিয়েছে। আর ভোট গণনায় অস্বাভাবিক বিলম্বের জন্য মোবাইল ফোন পরিষেবা স্থগিত করাকে দায়ী করেছে দেশটির সরকার।

পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম জিও নিউজ বলেছে, ফলাফল ঘোষণা করা ১০৬টি আসনের মধ্যে স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ৪৭টি আসনে জিতেছে। এসব প্রার্থীদের বেশিরভাগই ইমরান খানের আনুগত্য করে। বৃহস্পতিবারের নির্বাচনে মোট ২৬৫টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা হয়েছে।

এর আগে শুক্রবার বেলা ১টায় (বাংলাদেশ সময় ২টায়) পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন দেশটির জাতীয় পরিষদের ২৬৫টি আসনের মধ্যে ৭০টি আসনের ফলাফল ঘোষণা করে। এই ফলাফল অনুযায়ী, কারাবন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের দলের সমর্থিত স্বতন্ত্র প্রার্থীরা ২৪টি আসনে জয়ী হয়েছেন বলে জানানো হয়েছে।

এছাড়া প্রয়াত সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেনজির ভুট্টোর ছেলে বিলাওয়াল ভুট্টো জারদারির পাকিস্তান পিপলস পার্টিও ২৪টি আসনে জয় পেয়েছে বলে জানানো হয়েছে। আর সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফের পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজ (পিএমএল-এন) ১৮টি আসনে জয় পেয়েছে। বাকিগুলো ছোট দল জিতেছে।

মূলত ইমরান খানের পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফকে (পিটিআই) দল হিসাবে বৃহস্পতিবারের নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে দেওয়া হয়নি। এমনকি তাদের নির্বাচনী প্রতীকও ছিনিয়ে নেওয়া হয়েছিল। আর তাই ইমরানের দলের প্রার্থীরা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

বিশ্লেষকরা ভবিষ্যদ্বাণী করেছেন, এই নির্বাচনে কোনও দলই স্পষ্ট বিজয়ী নাও হতে পারে। মূলত বৃহস্পতিবার ভোটগ্রহণ বন্ধ হওয়ার ১৮ ঘণ্টা পরে কিছু ফলাফল ঘোষণা করা হয়েছে, যা পাকিস্তানের যেকোনও নির্বাচনের জন্য বেশ অস্বাভাবিক।

 

Be the first to comment on "পাকিস্তানের নির্বাচনে নিজেদের জয়ী ঘোষণা করল ইমরান খানের দল"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*