শিরোনাম

বিক্রমপুরের গর্ব : বিজ্ঞানী স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু

 

 

 

মাহবুব আলম জয় : প্রাচীন সভ্যতার জনপদ মুন্সীগঞ্জ তথা বিক্রমপুর। এই জনপদে অংসখ্য বিখ্যাত ব্যক্তিবর্গ জন্মরগ্রহণ করেন। যারা এই ভূমিতে জন্মগ্রহণ করে নিজেদের কর্মে বিক্রমপুর মুন্সীগঞ্জকে উজ্জ্বল করেছেন  তাদের মধ্যে অন্যতম স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু।  তিনি মুন্সীগঞ্জ তথা বিক্রমপুরের রাঢ়ীখাল গ্রামে   ১৮৫৮ সালের ৩০  নভেম্বর জন্ম গ্রহণ করেন। তার পিতা ভগবানচন্দ্র বসু ছিলেন ডেপুটি ম্যাজিস্ট্রেট।  জগদীশ চন্দ্র বসু একজন বাঙালি পদার্থবিদ, উদ্ভিদবিদ ও জীববিজ্ঞানী এবং প্রথম দিকের একজন কল্পবিজ্ঞান রচয়িতা।

জগদীশ কলকাতার হেয়ার স্কুল থেকে পড়াশোনা করে ১৮৭৯ খ্রিষ্টাব্দে সেন্ট জেভিয়ার্স কলেজ থেকে বিএ পাশ করেন।

১৮৮৪ খ্রিষ্টাব্দে তিনি লন্ডন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএসসি পাঠ সম্পন্ন করেন।

। তাঁর গবেষণা ফলে উদ্ভিদবিজ্ঞানকে সমৃদ্ধ করে তোলে এবং ভারতীয় উপমহাদেশে ব্যবহারিক ও গবেষণাধর্মী বিজ্ঞানের সূচনা করে।  ইনস্টিটিউট অব ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ার্স তাঁকে রেডিও বিজ্ঞানের জনক বলে অভিহিত। করে।

 

বৈজ্ঞানিক গবেষণার ভিত্তিতে বিজ্ঞানী জগদীশচন্দ্র ১৯০২ সালে রচনা করলেন ‘Responses in the living and non living’| ১৯০৬ সালে প্রকাশিত হল তাঁর দুটি গ্রন্থের মধ্যে তিনি প্রমাণ করলেন উদ্ভিদ বা প্রাণীকে কোনভাবে উত্তেজিত করলে তা থেকে একইরকম সাড়া মেলে।

তার অসামান্য অবদানের জন্য দেশে বিদেশে বিভিন্ন সন্মাননায় ভূষিত হন।

জগদীশ চন্দ্র বসু ১৯৩৭ সালের ২৩ নভেম্বর না ফেরার  দেশে পাড়ি জমান।

Be the first to comment on "বিক্রমপুরের গর্ব : বিজ্ঞানী স্যার জগদীশ চন্দ্র বসু"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*